মালয়েশিয়ায় পড়তে জানতে হবে যেসব বিষয়ে

Sharing

অন্যকন্ঠ,ঢাকা: আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে মালয়েশিয়া অভূতপূর্ব উন্নয়ন করেছে। দেশটি শিক্ষাক্ষেত্রেও অনেক উন্নত হয়েছে। বর্তমানে এশিয়ার বড় এডুকেশনাল হাব হিসেবে রূপ নিয়েছে দেশটি। এখানে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে অসংখ্য বিশ্বমানের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তাই উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশের অনেকেই এখন ছুটছেন দেশটিতে।

শিক্ষার পরিবেশ

মালয়েশিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে রয়েছে শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত রেফারেন্স বইসহ সমৃদ্ধ লাইব্রেরি। আধুনিক বৈজ্ঞানিক শিক্ষা সারঞ্জামাদির সফল ব্যবহার করা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। দেশি-বিদেশি দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে আধুনিক পাঠদান পদ্ধতির প্রচলন করা হয়েছে। আধুনিক শিক্ষার সঙ্গে ধর্মীয় ও নৈতিক শিক্ষার সমন্বয় রয়েছে। বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য অল্প খরচে উন্নত আবাসিক সুবিধা দেওয়া হয়। আর খাদ্যব্যবস্থাও স্বাস্থ্যকর।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

দেশটির পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্য উল্লেখযোগ্য হলো—ইউনিভার্সিটি মালায়া, ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি মালয়েশিয়া, ইউনিভার্সিটি পুত্রা মালয়েশিয়া, ইউনিভার্সিটি সায়েন্স মালয়েশিয়া, ইউনিভার্সিটি পেনডিডিকান সুলতান ইদ্রিস, ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া কেলানতান, ইউনিভার্সিটি কেবাংসান মালয়েশিয়া, ইউনিভার্সিটি টেকনোলজি মারা, ইউনিভার্সিটি উতারা মালয়েশিয়া, ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব মালয়েশিয়া ও ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া সারাওয়াক।

প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে—মাল্টিমিডিয়া ইউনিভার্সিটি, নটিংহাম ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি কুয়ালালামপুর, ওয়েস্টমিনস্টার ইন্টারন্যাশনাল কলেজ, লিমককউইং ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি, ইন্টি কলেজ, সানওয়ে ইউনিভার্সিটি, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব মালায়া ওয়ালস, ইউসিএসআই, মোনাশ ইউনিভার্সিটি, সেগি ইউনিভার্সিটি, হেল্প ইউনিভার্সিটি ও আল মদিনা ইউনিভার্সিটি উল্লেখযোগ্য।

Sharing